পশ্চিমবঙ্গ কৃষক বন্ধু প্রকল্প {All Details}, Online Application Form

পশ্চিমবঙ্গ কৃষক বন্ধু প্রকল্প 2023: পশ্চিমবঙ্গ সরকার 2019 সালের জানুয়ারি মাস থেকে শুরু করল কৃষকদের জন্য এক নতুন প্রকল্প. এই প্রকল্পের নাম কৃষক বন্ধু প্রকল্প. যে সমস্ত কৃষকেরা এই প্রকল্পের আওতায় থাকতে চান তাদের জন্য আমরা এই নিবন্ধটি লিখছি. এই নিবন্ধের মাধ্যমে আপনারা জানতে পারবেন এ প্রকল্পের আওতায় থাকতে হলে যোগ্যতা কি লাগবে?  এই প্রকল্পের  জন্য আবেদনপত্র জমা করতে হলে কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন পড়বে? এ পশ্চিমবঙ্গ কৃষক বন্ধু প্রকল্পের মাধ্যমে সরকার কি করতে চাচ্ছেন?  অর্থাৎ এই প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্যটা কি? এই প্রকল্পের আওতায় থাকতে হলে আমাদের কি করতে হবে? আপনারা এই পশ্চিমবঙ্গ কৃষক বন্ধু প্রকল্প সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য পেয়ে যাবেন এই নিবন্ধের মাধ্যমে. যে সমস্ত বন্ধুরা এই  প্রকল্পের জন্য আবেদনপত্র জমা করতে চাচ্ছেন তাদের উদ্দেশ্যে বলা হচ্ছে আপনারা কিন্তু বাড়িতে বসে অনলাইনের মাধ্যমেই আবেদনপত্র জমা করতে পারবেন.

WB Manobik Prokolpo – Check Here.

West Bengal Krishak Bandhu Scheme 2023

Scheme NameKrishak Bandhu Scheme
BeneficiaryFarmers of West Bengal
Money AmountYearly 4,000 to 10,000 Indian Rupees
Article CategoryScheme
Inaugurated byCM Mamata Banerjee

পশ্চিমবঙ্গ সরকার মাননীয়  মমতা ব্যানার্জি কৃষক এবং শ্রমিকদের সুবিধার জন্য দুটি প্রকল্প শুরু করেছেন. এ প্রকল্প দুটির মধ্যে একটি হলো ফসল বীমা এবং দ্বিতীয়টি হলো কৃষক বন্ধু প্রকল্প. পশ্চিমবঙ্গ কৃষক বন্ধু প্রকল্প 2023 প্রথম থেকেই সফলতা অর্জন করেছে. এই প্রকল্পের মাধ্যমে আত্মহত্যা সহ যেকোনো কারণে মৃত্যুবরণকারী কৃষকদের পরিবারকে দু লক্ষ টাকা প্রদান করা হবে. এই পশ্চিমবঙ্গ কৃষক বন্ধু প্রকল্পের দ্বারা পশ্চিমবঙ্গের অনেক কৃষক উপকৃত হবে. পরিবারের মেরুদন্ড হারিয়ে যারা পথে বসার উপক্রম নিয়েছে তাদের সবচেয়ে বড় সম্পদ হয়ে দাঁড়াবে কৃষক বন্ধু প্রকল্পের আর্থিক সহায়তা. এর মাধ্যমে কৃষকদের পরিবারেরা অভাবের অন্ধকারে নিমজ্জিত হয়ে যাবেনা. তারা এই অর্থ সাহায্যে  পেটের তাগিদে আবার নতুন করে কাজ শুরু করতে পারবে.

কৃষক বন্ধু ফর্ম

কৃষক বন্ধু প্রকল্পের নতুন ফর্ম প্রকাশিত হয়ে গেছে। যারা কৃষক বন্ধু প্রকল্পের জন্য আবেদন করেননি তারা এই ফর্ম টি নিচে দেওয়া লিংক থেকে ডাউনলোড করে নিন। তারপর এটি পূরণ করে নিকটবর্তী বি.ডি.ও অফিস বা দুয়ারে সরকার ক্যাম্প এ জমা করুন।

krishak bandhu new form 2023 download pdf

পশ্চিমবঙ্গ কৃষক বন্ধু প্রকল্প 2023

আমরা জানি সমগ্র ভারতবর্ষের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ একটি  রাজ্য. ভারতের বেশিরভাগ মানুষ কৃষি কাজের সাথে যুক্ত বিশেষ করে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বেশির ভাগ মানুষ কৃষির উপর নির্ভরশীল.এর জন্য ভারতের প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী রা কৃষকদের জন্য বিভিন্ন ধরনের যোজনা শুরু করেছে. যাতে তারা কৃষিকাজের আরো উন্নতি ঘটাতে পারে তবেই দেশের উন্নতি সম্ভব হবে.কেননা ভারতের বেশিরভাগ অর্থ কৃষি কাজের উপর নির্ভর করে  এসে থাকে.তাই ভারতসহ প্রত্যেকটি রাজ্যের কৃষিকাজ উন্নয়নের জন্য এবং কৃষকদের আগ্রহ বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন ধরনের যোজনা শুরু করা হয়েছে এর সেই সঙ্গে তাদেরকে আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে কৃষি কাজ করবার বিদ্যা প্রদান করবার জন্য বিভিন্ন  রাজ্যে ছোট ছোট মিটিং করে থাকে.যেখানে কিভাবে ফসল ভালো হতে পারে, কিভাবে কৃষিজ ফসল বৃদ্ধি করা যেতে পারে সে সম্পর্কে নানা তথ্য প্রদান করা হয়েছে.

আপনারা কি পশ্চিমবঙ্গ কৃষক বন্ধু প্রকল্পের আওতায়  থাকতে চান?  তাহলে আপনাদেরকে নিচে দেওয়া ডকুমেন্টস করে তৈরি রাখতে  হবে-

  •  আধার কার্ড
  •  ভোটার আইডি
  •  ব্যাংক একাউন্ট
  •  পাসপোর্ট সাইজ ফটো
  •  মোবাইল নাম্বার
  •  আপনার জমির কাগজপত্রের ফটোকপি ইত্যাদি.

Eligibility for পশ্চিমবঙ্গ কৃষক বন্ধু প্রকল্প

আপনি যদি পশ্চিমবঙ্গ কৃষক বন্ধু প্রকল্পের আওতায় থাকতে চান তাহলে আপনার মধ্যে এই সমস্ত যোগ্যতা থাকতে হবে. যেমন-

  •  প্রথমত আপনাকে কৃষক হতে হবে
  •  আবেদনকারীকে কৃষকের পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা হতে হবে.
  •  ব্যাংক একাউন্ট ঢাকা অতি আবশ্যক.
  •  জমির কাগজ পত্রের শংসাপত্র থাকতে হবে.

কৃষক বন্ধু প্রকল্পের সুবিধা

পশ্চিমবঙ্গ কৃষক বন্ধু প্রকল্পের আওতায় যে সমস্ত কৃষকেরা থাকতে চান তার বেশকিছু সুবিধা উপভোগ করতে পারবে এই প্রকল্পের মাধ্যমে. এই সুবিধা গুলি হল- 

  • এই প্রকল্পের আওতায় থাকা প্রত্যেকটি কৃষককে 2 লক্ষ টাকা লাইভ কভার বীমা প্রদান করা হবে.
  • আত্মহত্যা থেকে শুরুকরে দুর্ঘটনায় মারা যাওয়া কৃষকদের এই অর্থ প্রদান করা হবে.
  • ফসলের আচ্ছাদন 5000 টাকা দুটো কিস্তিতে এই প্রকল্পের আওতায় থাকা কৃষকদের দেওয়া হবে.
  • দুর্ঘটনায় মৃত কৃষকের পরিবারকে এই অর্থ প্রদান করা হবে.
  •  মৃত কৃষকের পরিবারকে 15 দিনের মধ্যে এই অর্থ প্রদান করা হবে.
  • এই প্রকল্পের জন্য পশ্চিমবঙ্গ সরকার 3 হাজার কোটি টাকা ব্যয় করার সিদ্ধান্ত  নিয়েছেন.
  • ফসল বীমার জন্য কোনরকম প্রিমিয়াম ছাড়াও রাজ্য সরকার এই প্রকল্পের অধীনে থাকা সমস্ত কৃষকদের সুবিধা প্রদান করবে.
  • খারিফ এবং রবি শস্যের জন্য সরকার দুটো কিস্তিতে একরপ্রতি 10 হাজার টাকা প্রদান করবে.

Kivabe Abedon Joma Korben?

আপনারা জানেন সরকারি যে কোনো সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে গেলে সর্বপ্রথম আপনাকে আবেদনপত্র জমা করতে হবে. আপনারা এর পাশাপাশি এও জানেন বর্তমানে  অনলাইনে বাড়িতে বসে যেকোনো প্রকল্পের জন্য আপনারা আবেদনপত্র জমা করতে পারবেন. এর জন্য আপনাদের কোন রকম সময়ের অপচয় ঘটবে না. অনলাইনে আবেদন করতে হলে আপনাদেরকে যে কাজটি করতে হবে তা নিচে দিয়ে দেওয়া হল:

সর্বপ্রথম আপনাকে অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে সেখানে “Online Application For Krishak Bandhu Prokolpo” স্থানে ক্লিক করতে হবে. ক্লিক করার পর আপনারা দেখতে পারবেন স্ক্রিনে একটি ফর্ম শো করছে. সেখানে জিজ্ঞাসিত যাবতীয় তথ্য সঠিক স্থানে প্রদান করুন. এরপর পুনরায় ফরমটি পরিদর্শন করুন. আপনার দেওয়া তথ্য সঠিক হলে আপনি সাবমিট অপশনে ক্লিক করে ফরম্যাট এই অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে জমা করে দিন. আপনি যদি প্রমাণপত্র হিসাবে একটি কপি রাখতে চান তাহলে তা প্রিন্ট আউট করে নিতে পারেন. আপনাকে যদি এই প্রকল্পের জন্য সঠিক বলে নির্বাচন করা হয় তাহলে আপনাকে এসএমএস এর মাধ্যমে জানানো হবে.

Links Area

Krishak Bandhu Official Websitewww.krishakbandhu.net
Krishak Bondhu New Application FormDownload PDF
Krishak Bandhu Status CheckClick Here

আশা করছি আমরা এই নিবন্ধের মাধ্যমে আপনাদের সঠিক তথ্য প্রদান করতে সফল হয়েছি.  এর পরও যদি আমরা কোন রকম তথ্য স্কিপ করে যাই তাহলে কমেন্ট বক্সে মাধ্যমে আমাদেরকে জানান. আমরা সেই তথ্য অবশ্যই প্রদান করব.