Bangla Krishi Sech Yojana 2020

কৃষি ক্ষেত্রে সেচ সুবিধার জন্য পশ্চিমবঙ্গ সরকার শুরু করলেন বাংলা কৃষি সেচ যোজনা.এই যোজনার মাধ্যমে কৃষকরা পরিমাণে জল ব্যবহার করে জমিতে চাষাবাদ হতে পারবে. এর ফলে কম বৃষ্টিপাত যুক্ত অঞ্চল কিংবা করার কারণে কৃষকেরা তাদের প্রয়োজনীয় জল সেচের কাজে ব্যবহার করতে পারবে.আপনারা জানেন ভারত একটি কৃষিপ্রধান দেশ. তাই ভারতের প্রত্যেকটি  রাজ্যে কমবেশি কৃষি কাজ হয়ে থাকে. এর ফলে আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে প্রত্যেকটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী দেশের কৃষি ব্যবস্থা নিয়ে বেশ চিন্তিত. আর কৃষকদের কথা চিন্তা ভাবনা করি প্রত্যেকটি রাজ্যের বেশকিছু যোজনা শুরু হয়েছে. তেমনি পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য শুরু হয়ে গেছে  বাংলা কৃষি সেচ যোজনা. পশ্চিমবঙ্গের জঙ্গলমহল অঞ্চলের, বাঁকুড়া, বীরভূম, পুরুলিয়া, মুর্শিদাবাদ প্রভৃতি কম বৃষ্টিপাত হয়ে থাকে. এই সমস্ত অঞ্চলে মাইক্রো সের্চ আধুনিক প্রযুক্তি এর সহায়তা নিয়ে কম জলে প্রচুর পরিমাণে চাষাবাদ করা যাবে.

Also Check – WB Scholarship 2021.

পশ্চিমবঙ্গে  কৃষি ক্ষেত্রে দুটি কৃত্রিম প্রক্রিয়া রয়েছে. যেমন  ড্রিপ সেচ, এবং ছিটিয়ে দেওয়া সেচ. 

বাংলা কৃষিক্ষেত্র যোজনা পশ্চিমবঙ্গ সরকার গৃহীত একটি দুর্দান্ত উদ্যোগ। এই প্রকল্পের উদ্বোধনের মূল লক্ষ্য হবে রাজ্যের কৃষকদের অবস্থার উন্নতি করা। এই প্রকল্পটি কৃষকদের ক্ষুদ্র সেচ সুবিধা স্থাপনে সহায়তা করবে যা জমিতে জলের অল্প ব্যবহারের সাথে কৃষকদের আরও ভাল চাষের ফলাফল পেতে সহায়তা করবে। যাইহোক, এটি খরাগুলির প্রভাবগুলি কমাতে সহায়তা করতে পারে যা ক্ষতিগ্রস্থদের মুখোমুখি হতে হয়। এনটাইটেলড স্কিমের উপকারী ফলাফল সম্পর্কে জানতে নিবন্ধের নীচের অংশটি পড়ুন।

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের এক দুর্দান্ত উদ্যোগ বাংলা কৃষি সেচ যোজনা.  এই যোজনার মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের উপকৃত হবে এছাড়া তাদের কৃষি ব্যবস্থার উন্নতি ঘটবে. এই যোজনার মাধ্যমে ক্ষুদ্র কৃষকেরা স্বল্প জল ব্যবহার করে ভালো চাষাবাদ করতে পারবে. যা তাদের  উপার্জনের উন্নতিতে সহায়তা করবে. এমনকি প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের কারণে অর্থাৎ পড়ার কারণে অনেক কৃষকেরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে থাকে. এই যোজনার ফলে সেইসব সমস্যা দূরীভূত হবে. এ যোজনা সম্পর্কে যদি আপনি আরো বিস্তারিত জানতে চান তাহলে সম্পূর্ণ নিবন্ধটি ভাল করে পড়ুন. 

 পশ্চিমবঙ্গ ভারতের পূর্বদিকে অবস্থিত একটি রাজ্য. এই রাজ্যে সমস্ত অংশের পর্যাপ্ত পরিমাণে বৃষ্টিপাত হয় না, কিছু অংশ রয়েছে যেখানে পর্যাপ্ত বৃষ্টিপাত হয় যার ফলে ভালো চাষাবাদ হয়ে থাকে. এছাড়া আরো কিছু অঞ্চল রয়েছে যেখানে   বৃষ্টির অভাবে কারণে ভালো চাষাবাদ হয় না. কিন্তু আজকে থেকে কৃষকদের এই সমস্ত সমস্যা দ্বিতীয় বার হবে না. কেননা পশ্চিমবঙ্গ সরকার কৃষকদের এই দূরাবস্থার কথা চিন্তা করি বাংলা কৃষি সেচ যোজনা শুরু করলেন. এই যোজনার মাধ্যমে খরা অঞ্চলে মাইক্রো  সের্চ এর সহায়তায় কৃষি কাজ করা সম্ভব হবে. আর যার ফলে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে.

আপনারা যারা এই যোজনা জন্য আবেদনপত্র জমা করতে চান তাদের প্রয়োজনীয় কিছু ডকুমেন্টস জমা করতে হবে. এই প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস গুলি হল-

  •  আধার কার্ড
  •  ভোটার আইডি
  •  মাসিক আয় শংসাপত্র
  •  মোবাইল নাম্বার
  •  ব্যাংক একাউন্ট
  •  পাসপোট সাইজ ফটো
  • ইমেল আইডি  ইত্যাদি.

 এই প্রকল্পের মূল লক্ষগুলি হল-

  • এটি আরও নিশ্চিত করে যে ফসলের খরা পরিস্থিতি দ্বারা ক্ষতিগ্রস্থ হবে না।
  • এই  যোজনার মাধ্যমে কৃষি ক্ষেত্রে উন্নতি সাধন ঘটবে.
  • কৃষকেরা  স্বল্প জলের ব্যবহার করে ভালো ফসল উৎপাদন করবে.
  •  খরা অঞ্চলে মাইক্রো সের্চ ব্যবহার করে কৃষকেরা ফসল উৎপাদন করবে. এর ফলে উৎপাদনের হার বৃদ্ধি পাবে. 
  • এই যোজনার মাধ্যমে  প্রাপ্ত অর্থ দিয়ে ক্ষুদ্র কৃষকেরা তাদের কৃষিকাজের উন্নতি সাধন করতে পারবে.
  •  এই যোজনার মাধ্যমে খাদ্যশস্য ছাড়াও শাকসবজি ফল চাষের উন্নতি ঘটবে.
  • আর্থিক দুর্বলতার কারণে যে সমস্ত কৃষকরা কৃষি কাজ ছেড়ে দিচ্ছে তারা আবার নতুন করে কৃষি কাজের সঙ্গে যুক্ত হবে.

পশ্চিমবঙ্গের যে সমস্ত কৃষকেরা আবেদনপত্র জমা করতে চান তার জন্য কিছু যোগ্যতা লাগবে সেগুলি হল-

1) আবেদনকারীকে পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা হতে হবে.

2)  আবেদনকারীকে কৃষক হতে হবে.

3)  আবেদনকারীর মাসিক আয় কম হতে হবে.

4)  আবেদনকারীর  জমির  মাটি পরীক্ষার সার্টিফিকেট জমা করতে হবে. 

যে সমস্ত কৃষকেরা আবেদনপত্র জমা করতে চান অনলাইনের মাধ্যমে তাদের অবশ্যই নিচে দেওয়া খুবই ভালো করে ফলো করতে হবে-

  •  প্রথমত, আপনাকে অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনাদেরকে বাংলা কৃষি সেচ প্রকল্প অনলাইন অ্যাপ্লিকেশন  এর স্থানে ক্লিক করতে হবে.
  •  দ্বিতীয়তঃ, এরপর আপনি স্ক্রিনে একটি ফর্ম দেখতে পারবেন. সেখানে জিজ্ঞাসিত যাবতীয় তথ্য সঠিকভাবে প্রদান করুন.
  •  তৃতীয়ত, সর্বশেষ যেটা আপনাকে করতে হবে সাবমিট অপশনে ক্লিক করতে হবে. 

বর্তমানে আপনার কাজ সমাপ্ত হয়েছে. প্রমাণ পত্র হিসাবে আপনি এর একটি ফটোকপি নিজের কাছে রেখে দিতে পারেন. যা পরবর্তীতে আপনার কাজে লাগতে পারে. আপনি যদি এই যোজনা জন্য নির্বাচিত হন তাহলে ডিপার্টমেন্ট থেকে আপনাকে আপনার নাম্বারে এসএমএস করা হবে. সেই অনুযায়ী আপনাকে অফিসের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে. আশা করছি আমরা আপনাদের যাবতীয় প্রশ্নের উত্তর দিতে  পেরেছি এর পরও যদি আপনাদের কোন রকম সমস্যা থেকে থাকে তাহলে কমেন্ট বক্সে মাধ্যমে আমাদের জানান. আমরা সব সময় আপনাদের সাথে রয়েছি.