কন্যাশ্রী প্রকল্প 2020 | Download kanyashree prakalpa in bengali wbkanyashree.gov.in

kanyashree prakalpa: ভারতের মহিলাদের কল্যাণের কথা চিন্তা করে সরকার শুরু করলেন kanyashree prakalpa. মহিলাদের সামাজিক কাঠামো শক্তিশালী করে তুলতে হবে না হলে সমগ্র ভারতবর্ষে কখনোই শক্তিশালী হয়ে উঠবে না. কিন্তু জনবহুল ভারতবর্ষে জনসংখ্যা এতটাই বেশি যে সবাইকে সমান পরিচর্যা করা যাচ্ছে না.

এজন্য কেন্দ্র সরকার ও রাজ্য সরকার মিলে জনবহুল ভারতবর্ষের জনসংখ্যার কথা চিন্তা ভাবনা করেই এই  kanyashree prakalpa র উদ্যোগ নিয়েছেন.kanyashree prakalpa পশ্চিমবঙ্গ সরকার চালু করেছেন.

এই kanyashree prakalpa এতটাই প্রশংসা অর্জন করেছে যে তিনি এর জন্য বিদেশ থেকে পুরস্কার পেয়েছিলেন পেয়েছিলেন.এই kanyashree prakalpa সম্পর্কে জানতে হলে আপনাকে আমাদের এই নিবন্ধটি ভালো করে পড়তে হবে.

kanyashree prakalpa 2013 সালে 8 ই মার্চ  সমাজে মহিলাদের উন্নয়নের কথা চিন্তা করে উদ্বোধন করা হয়েছে.তিনি কেবলমাত্র সমাজে মহিলাদের অগ্রগতির কথা চিন্তা করে এই kanyashree prakalpa টি শুরু করলেন.

কন্যাশ্রী প্রকল্প

kanyashree prakalpa উদ্দেশ্য কী?

আমাদের সমাজে মেয়েরা সব দিক থেকে নির্যাতিত এবং অপমানিত হয়ে থাকে. কেননা বেশিরভাগ মেয়েকে অশিক্ষা গ্রাস করেছে. আমাদের দেশে মেয়েদের সামাজিক  এবং পারিবারিক অনেক অপমান সহ্য করতে হয়. এই সমস্ত কিছু বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছে সরকার. 

আর এর জন্যই তিনি kanyashree prakalpa পরিকল্পনা নিয়েছেন.তো চলুন দেখে নেওয়া যাক এই kanyashree prakalpa র মূল উদ্দেশ্য গুলি কি কি-

  1. বাল্যবিবাহ নির্মূল হবে.
  2.  মেয়েরাও উচ্চশিক্ষার সুযোগ পাবে.
  3. মেয়েরা পড়াশোনার জন্য আর্থিক সহায়তা লাভ করবে সরকারের কাছ থেকে. 
  4. মেয়েরা যদি উচ্চশিক্ষার সুযোগ পায় তবেই তাদের অ্যাকাউন্টে 25 হাজার টাকা পাঠাবে সরকার.
  5. মেয়েদের উন্নতি ঘটলে সমাজের উন্নতি ঘটবে.
  6. কন্যা শিশুর মৃত্যুর হার হ্রাস পাবে.
  7. মেয়েদের প্রতি অন্যায় অবিচার হ্রাস পাবে.
  8. kanyashree prakalpa র হলে কন্যা সন্তানদের স্কুল ছুটের সংখ্যা কমেছে.

এই ঘটনার মাধ্যমে মেয়েরা যত বেশি স্কুলে থাকবে তারা স্বাধীনতা সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করার সুযোগ পাবে. এই সময় শিক্ষার্থীরা যে জ্ঞান অর্জন করবে তা ভবিষ্যতে তাদের উন্নতিতে সহায়তা করবে.

কন্যাশ্রী প্রকল্প 2020

Kanyashree Track Application- Click here

About kanyashree prakalpa 2020 কন্যাশ্রী প্রকল্প wbkanyashree.gov.in

আমাদের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে মোট জনসংখ্যার ৪৮.১১ শতাংশ মহিলা রয়েছে 10 থেকে 19 বছরের নিচে.54%  রয়েছে সদ্য বিবাহিত মহিলা যাদের বয়স 18 বছরের কম.এই সমস্ত বেআইনি কাজগুলো হয়ে থাকে সাধারণত মুর্শিদাবাদ বীরভূম মালদা পুরুলিয়া প্রকৃতির আছে.

এই সমস্ত রাজ্যের বেশিরভাগ মেয়েদেরকে অল্প বয়সে বিবাহ দিয়ে দেওয়া হয়. দশম শ্রেণীতে যে সমস্ত ছাত্রীদের বিবাহ হয় তার পার্সেন্টেজ প্রায় ৬৩.অবশ্যই এর পিছনে পারিবারিক অশিক্ষা লুকিয়ে রয়েছে.

এরকম অন্যায় আটকাতে গেলে আমাদের সর্বপ্রথম মেয়েদের শিক্ষিত করতে হবে. যাতে পরবর্তীতে অল্প বয়সে বিবাহের হার কমে আসে. এই সমস্ত দিকের কথা চিন্তা করে 2013 সালে শুরু হয়ে যায় আমাদের মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির উদ্যোগে এক নতুন যোজনা.যার নাম kanyashree prakalpa.

কন্যাশ্রী প্রকল্প DOWNLOD

Kanyashree Mobile AppDownload Here

Why Kanyashree- click here

What is Kanyashree- Click here

Kanyashree FAQ- Click here

Condition of Cash Transfer- Click here

Kanyashree Guidline- Click here

Kanyashree Video- Click here

Kanyashree Audio- Click here

Kanyashree Latest Event- Click here

Kanyashree News- Click here

কন্যাশ্রী প্রকল্প PUBLISHED HERE

Kanyashree REGISTER YOUR GRIEVANCE- Click here

কন্যাশ্রী প্রকল্প RELEASED

Kanyashree STATUS OF REDRESSAL- Click here

কন্যাশ্রী প্রকল্পের সুবিধা

kanyashree prakalpa 8 মার্চ 2013 সালে শুরু করা হয়েছিল. এই kanyashree prakalpa এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের বার্ষিক হাজার টাকা দেওয়া হয়. কিন্তু প্রথমে 500 টাকা দেওয়ার কথা হয়েছিল. কিন্তু পরবর্তীতে তা হাজার করা হয়েছে.

13 থেকে 18 বছর পর্যন্ত অবিবাহিত মেয়েরা কন্যাশ্রী প্রকল্প এর টাকা পাবে. শিক্ষার্থীর 18 বছর হয়ে গেলে ব্যাংকে তাদের নামে 25 হাজার করে টাকা আসবে.

  • এর জন্য শিক্ষার্থীকে অবশ্যই বিদ্যালয় নিয়মিত ক্লাস করতে হবে
  • যেকোনো বৃত্তিমূলক পরীক্ষা দিতে হবে
  • অবিবাহিত হতে হবে 
কন্যাশ্রী প্রকল্প
কন্যাশ্রী প্রকল্প 2020

কন্যাশ্রী প্রকল্পের যোগ্যতা

যেকোনো যোজনার আওতায় থাকতে হলে অবশ্যই কিছু যোগ্যতার প্রয়োজন. তো চলুন জেনে নেওয়া যা kanyashree prakalpa  লাভের জন্য কি কি যোগ্যতা প্রয়োজন-

  •  পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে
  •  13 থেকে 18 বছর বয়স হতে হবে.
  •  বার্ষিক আয় এক লক্ষ কুড়ি হাজার টাকা কম হতে হবে.
  •  অবশ্যই বিদ্যালয়ে পড়াশোনা পড়তে হবে
  • অবিবাহিত হতে হবে.

প্রত্যেক বছর প্রায় 18 লক্ষ মেয়ে এই kanyashree prakalpa র দ্বারা সুবিধা লাভ করে থাকে. 3.5 মিলিয়ন মেয়েদের কাছে এই kanyashree prakalpa পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছেন সরকার. আশা করছি তার এই পরিকল্পনা  একদিন সফল হবে. 

কন্যাশ্রী প্রকল্প ONLINE APPLICATION

Kanyashree Issue Tracking- Click here

kanyashree prakalpa প্রাপ্তির জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস

যেকোনো যোজনা লাভের জন্য কিছু ডকুমেন্টস জমা করতে হয়. সেই ডকুমেন্টস গুলি কি কি জেনে নেওয়া যাক –

  • কন্যা সন্তানের জন্ম শংসাপত্র
  • পারিবারিক বার্ষিক আয় এক লাখ কুড়ি হাজারের কম.
  • অভিভাবকদের পথিক ঘোষণাপত্রের বিবৃতি
  •  কন্যা সন্তানের বর্তমান ঠিকানা
  •  কন্যাসন্তানের অ্যাকাউন্ট নাম্বার
  •  কন্যাসন্তানের আধার কার্ড/ ভোটার আইডি 
  • রেসিডেন্সিয়াল সার্টিফিকেট
  •  ব্যাংকের পাস বই
  • কন্যা সন্তান প্রতিবন্ধী হলে তার শংসাপত্র 

কন্যাশ্রী প্রকল্পের সম্বন্ধে জেনে নিন কিছু অজানা তথ্য-

রাজ্যে 15500 শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় 40 লক্ষ ছাত্রী kanyashree prakalpa র আওতায় রয়েছে. সমস্ত রকম স্কুল-মাদ্রাসা-কলেজ মুক্ত বিদ্যালয় কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় এমনকি খেলাধুলার প্রতিষ্ঠান এ অন্তর্গত ছাত্রীরা এই kanyashree prakalpa র আওতায় থাকতে পারবে.

  1. এখনো পর্যন্ত পাঁচ হাজারের বেশি কন্যাশ্রী পেয়েছে আত্মরক্ষা প্রশিক্ষণের.
  2.  উত্তর 24 পরগনায় kanyashree prakalpa চালু করা হয়েছে.
  3. অনেক ছাত্রীকে বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কন্যাশ্রী দেওয়া হয়েছে.
  4. কন্যাশ্রীর আওতায় থাকা অনেক ছাত্রীদের কর্মসংস্থানেরও সুযোগ করে দিয়েছেন সরকার.
  5. 2015-16 সালে কন্যাশ্রী প্রকল্পে অন্তর্গত করা হয় সবলা প্রকল্প. 
  6. 2013 সাল থেকেই এই kanyashree prakalpa চরম সুনাম লাভ করেছে. 
  7. প্রায় 1600 ছাত্রীকে ফিরিয়ে আনা হয়েছে বিদ্যালয় যারা স্কুল ছেড়ে  দিয়েছিল.

কন্যাশ্রী প্রকল্পের জন্য আবেদনপত্র জমা দেওয়ার পদ্ধতি

আপনি কি অনলাইনের মাধ্যমে kanyashree prakalpa এর সুবিধা লাভ করতে চান ?  তাহলে আপনি একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ করতে হবে. চিন্তা নেই নিচের স্টেপ গুলি লিখে দিয়েছি সেগুলো ফলো করতে হবে-

  1. প্রথমে আপনাকে স্কুল থেকে ফরমটি সংগ্রহ করতে. প্রথম ফর্মটিতে আপনাকে বাসিক মৃত্যুর জন্য পূরণ করতে হবে এবং দ্বিতীয়  ফর্মটি এককালীন অনুদানের জন্য পূরণ করতে হবে. 
  2. কন্যা সন্তানের নামে একটি ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে হবে.কন্যা সন্তানের নামে ব্যাংক একাউন্ট খোলার পেছনে বিশেষ কারণ রয়েছে কেননা কন্যা সন্তানের নাম এই একাউন্টে টাকা আসবে.
  3.  যে সমস্ত ডকুমেন্টস এর কথা আমরা পূর্বেই উল্লেখ করেছি সেই সমস্ত ডকুমেন্ট ফরমের সাথে জমা দিতে হবে স্কুল শিক্ষক বা শিক্ষিকার কাছে.

কন্যাশ্রী প্রকল্পের আবেদন পত্র জমা পড়েছে কিনা সে সম্পর্কে জানতে কি করতে হবে ?

kanyashree prakalpa এর আওতায় থাকতে হলে আপনাদেরকে এই সমস্ত পদক্ষেপ অনুসরণ করতে হবে-

  1.  প্রথমে আপনাকে অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে kanyashree prakalpa এর পোর্টালে লগইন করতে হবে.
  2.  এরপর আপনাকে ট্রাক অ্যাপ্লিকেশন  এর  স্থানে ক্লিক করতে হবে.
  3.  এরপর আপনি প্রয়োজনীয় তথ্য যেমন বছর স্কিমের ধরণ আবেদনকারীর আইডি এবং DOB সাবমিট অপশনে ক্লিক করুন.
  4. আপনি যদি এ kanyashree prakalpa এর আওতায় চলে আসেন তাহলে আপনাকে ব্যাংকের মাধ্যমে অর্থ প্রদান করা হবে.

আপনাদের মত অনেকে রয়েছে যারা অন্যের kanyashree prakalpa এর নাম শুনেছি. কিন্তু kanyashree prakalpa লাভ করতে গেলে কি কি করতে হবে তা জানি না. আপনাদের উদ্দেশ্যে আমি এই নিবন্ধটি লিখেছি. আপনারা যদি এই নিবন্ধটি ভালো করে না করেন তাহলে আমার এই লেখা ব্যর্থ হয়ে যাবে.

আমার উদ্দেশ্য আপনাদের মত মানুষের কাছে সরকারি স্কিম গুলি পৌঁছে দেওয়া অর্থাৎ কিভাবে আপনারা সরকারি স্কিম গুলি লাভ করতে পারবেন তা জানানো আমার কাজ.

আপনারা যদি কন্যাশ্রী প্রকল্প সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে চান তাহলে অবশ্যই অফিশিয়াল সাইটে যেতে পারে আমরা এখানে তার লিংক দিয়ে দিয়েছি.পশ্চিমবঙ্গ সরকারের এরকম খবর পেতে কিংবা টিমে সুবিধা লাভ করতে নিয়মিত পরিদর্শন করুন আমাদের ওয়েবসাইট jobsandhan.com.